আজ সাংবাদিক হাসান মিসবাহের শুভ জন্মদিন

জসিম উদ্দীন সরকার :

hasan misbah rহারিয়ে গিয়েছে মানবতা, হারিয়ে গিয়েছে ভালবাসা, হারিয়ে গিয়েছে একে অপরের প্রতি সহনুভতি। সড়ক দূর্ঘটনায় মারাক্তক ভাবে আঘাত পেয়ে হাসপাতালের বিছানায় কাতরাচ্ছে সাংবাদিক হাসান মিসবাহ,অথচ তার খোঁজ খবর নেবার যাদের দায়িত্ব ছিল তারা আজ তাকে দূরে ঢেলে দিচ্ছে।

একজন সাংবাদিক তিনি কাজ করেছেন সাধারন মানুষের দুঃখ কষ্ট নিয়ে। আর আজ তার পাশে দাঁড়াবার কেউ নেই।

“”সাংবাদিক হারুন আর রশিদ তার ফেইসবুকের এক স্টাটাসে লিখেছেন, মাইক্রোবাসের চাপায় গুরুতর আহত ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশন-এর সাংবাদিক হাসান মিসবাহ তিনদিন ধরে পঙ্গু হাসাপাতালের ফ্লোরে পড়েছিলেন। এই তিনদিন তেমন কেউ তার খোঁজ নেননি। বাংলা ট্রিবিউনের সিনিয়র রিপোর্টার জাকিয়া আহমেদ মিসবাহ’র চিকিৎসার বিষয়ে প্রতিবেদন তৈরি করতে শনিবার ফোন করেন একটি টিভি চ্যানেলের এক কর্তাকে। আর তাতেই তিনি রেগে আগুন।

তিনি বললেন,‘ আমি তিনদিন পরে গিয়েছিতো কী হয়েছে? জানেননা নির্বাচন চলছিল। আমিতো নিউজরুম হেড। আমাকে নিউজরুম ভাইব্রেন্ট রাখতে হয়। আমি কী হাসপাতালে গিয়ে বসে থাকব?’

এর পর তিনি বললেন,‘ সাংবাদিকতার নর্মস আছে। তা জানতে হবে। সেটা না জেনে প্রশ্ন করা যাবেনা।’

তিনি আরো অনেক কথা বলেছেন। আর কথা বলার পুরোটা সময় ছিলেন উত্তেজিত।

জাকিয়া বিষয়টি আমাকে জানানোর পর খোঁজ নিয়ে দেখেছি এই কর্তা ব্যক্তিটি একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের হেড অব নিউজ বা বার্তা প্রধান।

পাদটীকা: ধরা খেলে আর যুক্তি না থাকলে মানুষ উত্তেজিত হয়। প্লিজ জাকিয়া কষ্ট পাবেন না।“”

আমরা জানি মানুষ মানুষের জন্য অথচ আজ সেটা হারিয়ে যাচ্ছে। এটাই কি মানবতা। যে লোকটি সাংবাদিকদের ছবক দিলেন তিনি তার সাংবাদিকতার কতটুকু মূল্য দিলেন?

এদিকে একুশে টেলিভিশনের সাংবাদিক এবং একুশে রাতের উপস্থাপক মঞ্জুরুল আলম পান্না তার ফেইসবুকের স্টাটাসে সাংবাদিক হাসান মিসবাহের জন্য সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন এবং সকলকে মিসবাহের পাশে দাঁড়াতে অনুরুধ করেছেন।

তিনি আরেকটি স্টাটাসে জানিয়েছেন, মিসবাহের জন্য ভালোবাসার সন্ধি গড়তে আমরা এক হতে চাই পেট্রোবাংলার সামনে, ওরই জন্মদিন ৩ জানুয়ারী, রোববার ঠিক সন্ধ্যা ৬টায়। শুরু নতুন এক স্বপ্নের- একজন সাহসী যোদ্ধাকে স্বাভাবিক জীবণে ফিরিয়ে আনার। যদি সম্ভব হয়, প্রত্যেকের সাধ্য মতো প্রাথমিক প্রস্তুতি নিয়ে আসার বিনম্র আহবান। তা না পারলেও অন্তত সহযোদ্ধা হয়ে এই মিছিলে মানবতার জয়গান গাইতে অন্তত……

থাক না পড়ে তুই স্বপ্নহীণ চোখে ভাই, তবুও শুভেচ্ছা জন্মদিনের…..!!

তাই আসুন মানবতার স্বার্থে হাসান মিসবাহের পাশে দাঁড়াই।

শুভ জন্মদিন ভাই হাসান মিসবাহ, আপনি বেঁচে থাকুন যুগযুগ ধরে আমাদের মাঝে,এই কামনা রইল।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন