আপনার প্রেমের স্থায়িত্ব কতক্ষণ!

সময়বাংলা, ডেস্ক: জীবনে থিতু হওয়ার অর্থ কী— এই প্রশ্ন যদি করা যায়, তা হলে বেশির ভাগ মানুষই প্রথমে বলবেন জীবিকার সংস্তানের কথা। এবং তার পরেই অবধারিত ভাবে আসবে বিবাহের প্রসঙ্গ। আর বিয়ে বলতে বেশির ভাগ মানুষই চান, তা হবে প্রেমজ। কিন্তু সব প্রেম যে বিবাহে শেষ হয় না, তা-ও অজানা নয়। আবার বিয়েতে প্রেম পরিণতি পেলেও সেটা যে দীর্ঘস্থায়ী হবে, এমন কোনও স্থিরতা নেই।

কোন প্রেম আপনাকে শান্তি দেবে— এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজেন বেশ কিছু মনোবিদই। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইল্লিনয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিদ সুজান ডেগেস-হোয়াইট এ বিষয়ে কিছু যুক্তিগ্রাহ্য সিদ্ধান্তে এসেছেন। তাঁর মতে, বেশ কিছু লক্ষণ দেখে বোঝা যায়, প্রেম স্থায়ী হবে কি না। নীচে রইল ৫টি লক্ষণের কথা। আপনি মিলিয়ে দেখুন, কতটা আপনার প্রেমের সঙ্গে মেলে। যদি বেশির ভাগটাই মিলে য়ায়, তা হলে নিশ্চিন্তে এগোতে পারেন আপনার মনের মানুষের সঙ্গে স্থায়ী সম্পর্ক গড়ার দিকে।

• আপনি নিজেকে আপনার পার্টনারের থেকে আলাদা করে ভাবেন না। বিয়ে না করেও নিজেদের সব সময়ে ‘কাপল’ হিসেবেই ভাবেন। কিন্তু আপনি যদি দেখেন, আপনার পার্টনার তাঁর কিছু এক্সক্লুসিভ বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন, আপনি ঈর্ষান্বিত বোধ করেন। এমন ক্ষেত্রে সম্পর্ক স্থায়ী হওয়ার সম্ভাবনা কম।

• আপনার পার্টনার কোনও নতুন কিছু আপনার সঙ্গে শেয়ার করলেন। কোনও নতুন অ্যাডভেঞ্চারের প্ল্যান অথবা নতুন কোনও উদ্যোগের কথা। আপনি কতটা তার অংশভাক হতে পারবেন? কতটা সেই পরিকল্পনাকে নিজের বলে ভাবতে পারবেন?

• আপনার পার্টনারের চাকরিতে উন্নতি, তাঁর কোনও সৃজনশীল প্রতিভার স্বীকৃতি আপনি কতটা খুশি মনে নিতে পারেন? আপনার পার্টনারের সাফল্য আপনাকে কোনও বিপন্নতার সামনে ফেলে দেয় না তো?

• আপনার পার্টনারকে কতটা সময় দেন আপনি সেটা বড় কথা নয়, কতটা সময় তিনি একা কাটানোর জন্য পান, সেখানেই নির্ভর করে সম্পর্কের স্থায়িত্ব। পরস্পরের ব্যক্তিগত স্পেসের স্বীকৃতি কিন্তু অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

• মনে রাখবেন, প্রেম মানে কিন্তু পরস্পরের সঙ্গে লেপটে থাকা নয়। পরস্পরের প্রতি নজরদারি করে সময় নষ্ট করবেন না। বিশ্বাস রাখুন সম্পর্কের উপরে। বার বার ফোন করে পার্টনারকে বিরক্ত করা, সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর অ্যাকাউন্ট স্টক করা, তাঁর মোবাইলের মেসেজ বক্স লুকিয়ে চেক করা ইত্যাদির মানে কিন্তু সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে।

সময়বাংলা/আইসা

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন