কাশ্মিরে শিশু ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে রাহুল গান্ধীর বিক্ষোভ

সময়বাংলা,ডেস্ক: ভারতনিয়ন্ত্রিত জুম্মু-কাশ্মিরে ৮ বছরের শিশুকে গণধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা ভারত। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে প্রতিবাদ-কর্মসূচি পালন করে বিভিন্ন রাজনৈতিক-সামাজিক ও মানবাধিকার সংস্থা। সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে কোন প্রতিক্রিয়া না এলেও মুখ খুলছেন অনেক বিজেপি নেতা। এরইমাঝে ৮ অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে ভারতের অন্যতম স্থাপনা ইন্ডিয়া গেট পরিণত হয় আন্দোলন মঞ্চে। জম্মু-কাশ্মিরের মাত্র ৮ বছরের আসিফাকে গণধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় ক্ষুব্ধ ভারতীয়রা নামেন মহাসড়কে। ‘নির্ভয়া হত্যা’র বিচারের দাবির সাথে করা হয় এর তুলনা।

চাঞ্চল্যকর ঘটনায় সরকারের নিশ্চুপ ভূমিকায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানান বিরোধীরা।

কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেন, ‘নারীদের সুরক্ষা রাজনৈতিক নয় বরং জাতীয় ইস্যু। একারণেই দলমত নির্বিশেষে সবাই যোগ দিয়েছেন বিক্ষোভ কর্মসূচিতে। বর্বর হামলা থেকে রক্ষা পাচ্ছে না আমাদের বোন, স্ত্রী, কন্যারাও। সরকারের সোচ্চার হওয়া প্রয়োজন। নতুবা মোদি প্রশাসনের ‘বেটি বাঁচাও’- আন্দোলন মূল্যহীন হয়ে পড়বে’।

কংগ্রেস জ্যেষ্ঠ নেতা সালমান খুরশিদ বলেন, ‘যারা ভুক্তভোগী এবং যারা এধরণের ঘটনায় উদ্বুদ্ধ হন, তাদের কাছ পর্যন্ত পৌঁছাতেই আমাদের এ কর্মসূচি। তবে, ক্ষোভ প্রকাশ যথেষ্ট নয়। কিভাবে, এই সংকটের নিরসন করা যায়, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ’।

আসিফা হত্যার বিচার চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন, বলিউড তারকা, ক্রিকেটার থেকে শুরু করে বিজেপির অনেক নেতা। ছোট্ট শিশুটিকে সুষ্ঠু বিচার দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিও।

তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি কাঠুয়ায় ৮ বছরের একটি শিশুকে গণধর্ষণের পর হত্যার খবর পেয়েছি আমরা। কিন্তু ঘটনাটিকে সাম্প্রদায়িকতার দিকে ঠেলে দেয়ার প্রয়াস চালানো হচ্ছে। সাবধান করছি কোনভাবেই এসব উসকানিতে পা দেবেন না কারণ আসিফা’র পরিবারকে সুষ্ঠু বিচার পাইয়ে দেয়ার দায়িত্ব সরকারের’।

এদিকে তদন্তে বেরিয়ে এসেছে, জমি থেকে সংখ্যালঘু পরিবারটিকে উৎখাতের জন্যেই শিশু আসিফাকে জানুয়ারি মাসে অপহরণ করেন রাজস্ব কর্মকর্তা সাঞ্জি রাম। তাকে সহায়তা করেন ৪ পুলিশ কর্মকর্তা ও পরিবারের তিন সদস্য। চেতনানাশক ওষুধ প্রয়োগ করে; চালানো হয় পাশবিক নির্যাতন। কিন্তু বিষয়টি মামলায় গড়ালে হত্যা করা হয় নিষ্পাপ শিশুটিকে।

সময়বাংলা/আইজু

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন