তরুণীদের জন্য দারুণ ১০ ফ্যাশন টিপস

সময় বাংলা, ডেস্ক:

জমিয়ে স্টাইল করলেন, পছন্দের সাজে নিজেকে সাজিয়েও তুললেন। কিন্তু ঠিকঠাক ফ্যাশন টিপস জানেন না, তাই আপনার শখের সাজটা নিয়ে সবাই হাসাহাসি করল। ফলে দিন শেষে বাড়ি ফিরলেন মন খারাপ নিয়ে। কিন্তু ভাবুন তো, যদি আপনার জানা থাকত দারুণ এই ফ্যাশন টিপসগুলো, তাহলে কি ভালোই না হত! তাহলে আর দেরি কেন? এখুনি পড়ে নিন আমাদের ফ্যাশন টিপসগুলো।

১. নিজের শরীরের গঠন জানুন
নিজের বডি শেপ, ফিগারকে ভালো করে জানুন। মনে রাখবেন আপনার স্টাইল কিন্তু শুরুই হয় ফিগার থেকে। আর নিজের ফিগারকে না জানলে সেখানেই সব শেষ। অতি ভালো ড্রেসও তাহলে আপনার ফিগারে বেখাপ্পা লাগতে পারে। তাই নিজের ফিগার সম্পর্কে সচেতন হন।

২. ঠিকঠাক অন্তর্বাস পরুন
বেশীরভাগ মেয়েই কিন্তু সঠিক সাইজের অন্তর্বাস পরেন না। আর তাই দেখা যায় বডি শেপে নানা সমস্যা। নিজের সাইজকে জানা কিন্তু খুব দরকার। তাই এবার থেকে অন্তর্বাস কেনার আগে ভালো করে নিজের মাপ জানুন। কারণ একটা সঠিক সাইজের অন্তর্বাস আপনার কনফিডেন্সকেই অনেক গুণ বাড়িয়ে দিতে পারে।

৩. ভালো অন্তর্বাস কিনুন
অনেকেই ভাবেন অন্তর্বাস তো আর দেখা যায় না বাইরে থেকে। তাই কম দামের যাহোক একটা কিনে নিলেই হবে। কিন্তু এটা আপনার শরীরের পক্ষে একদম ভালো না। অন্তর্বাস সবসময় দামী আর ভালো কোয়ালিটির কিনবেন। আর সুতির জিনিস ব্যবহার করতে চেষ্টা করুন।

৪. ক্লাসিক ফ্যাশন—ট্রেঞ্চ, লেদার, ডেনিম জ্যাকেট
ক্লাসিক স্টাইলে ফ্যাশন কিন্তু অল টাইম ফ্যাশন হিট। আর সেইজন্যই আপনার ওয়ার্ড্রোবে যদি থাকে একখানা ট্রেঞ্চ, লেদার বা ডেনিমের স্টাইলিশ হট জ্যাকেট, তাহলে ক্লাসিক স্টাইলে আপনাকে কুল লাগতে বাধ্য।

৫. লাল পাম্পশু
পাম্পশু তো পরেন। কিন্তু মিষ্টি লাল একটা পাম্পশু কিন্তু আপনার স্টাইলের সংজ্ঞাটাকেই পালটে দিতে পারে। তাই আপনার শু র‍্যাকে একটা রাখতেই পারেন। সব ড্রেসের সাথেই ইউনিক লাগবে।

৬. ডিজাইনার স্কার্ফ
উলেরই হোক, বা সিল্ক আর সার্টিনেরই হোক, শীতকালই হোক, কি গরমকাল– ফ্যাশনে ইন থাকতে হলে আজই কিনে ফেলুন ডিজাইনার স্কার্ফ। অনেক ভালো ডিজাইন পাবেন। পছন্দেরটা কিনে নিন।

৭. ডেনিম
যাই বলুন, জিনস ছাড়া কিন্তু আজকের মেয়েরা অচল। আর একটা দারুণ জিনস কিন্তু আপনার লুকে একটা এক্সট্রা স্মার্টনেস অ্যাড করে। তবে হ্যাঁ, নিজের ফিগার বুঝে কিনতে কিন্তু ভুলবেন না।

৮. কালার ম্যাচ করুন ঠিক করে
দেখুন, জামার রঙ ঠিক করে ম্যাচ করে পরা কিন্তু মাস্ট। আগে বুঝুন কোন রঙ আপনার ওপর ভালো খুলবে। তারপর সেই অনুযায়ী জামাকাপড় পছন্দ করুন।

৯. ঠিক করে জামাকাপড় ধোবেন
জামাকাপড় ঠিক করে না ধোওয়ার জন্য কিন্তু আপনার অনেক দামী জামাকাপড় নষ্ট হয়ে যেতে পারে। সাদা জামার সাথে রঙিন জামা যেমন একসাথে কাচবেন না, তেমনই ওয়াশিং মেশিনে ব্রা কাচবেন না ভুলেও। সোয়েটার কাচার সময় যেমন আলাদা ডিটারজেন্ট ব্যবহার করবেন।

১০. লেয়ারে স্টাইল করুন
যখনই দেখবেন কোনো ভুলভাল জামাকাপড় পরেছেন, একদম চাপ নেবেন না। স্টোল জড়িয়ে দিব্য লেয়ার স্টাইল করে নিন। জামাকাপড়ের খুঁতও ঢাকা যাবে। আর দেখতেও বেশ ফ্যাশনেবল লাগবে।

আর যাই করুন না কেন, যেভাবেই করুন না কেন, নিজের ওপর কনফিডেন্সটা কিন্তু রাখতে ভুলবেন না। কনফিডেন্স নিয়েই ক্যারি করুন সব পোশাক। এতে আপনাকে ফ্যাশনেবল আর স্টাইলিশ লাগবে।

ঠিকঠাক মত সাজতে করতে পারলে আপনাকেও লাগবে আলিয়া ভাটের মত ফ্যাশনেবল আর আকর্ষণীয়।

এসএস

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন

এ বিভাগের আরো খবর