তিন উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে বাংলাদেশ

সময়বাংলা, খেলা: ১৭৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে টাইগাররা। রান তাড়া করতে নেমে ভালো একটি উদ্বোধনী জুটির অপেক্ষায় ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু দলীয় ১২ রানে ওয়াশিংটনের বাইরের বল মারতে গিয়ে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হন লিটন দাশ। সাজঘরে ফিরলেন ৭ রান। লিটন ফিরতে না ফিরতেই তার সাজঘরে ফিরতে হল সৌম্যকেও। ব্যক্তিগত ১ রানে সেই ওয়াশিংটনেই বোল্ড হলেন তিনি।

এরপর তামিম-মুশফিকে ভরসা রাখতে হয়েছিল বাংলাদেশকে। কিন্তু দলকে বিপদে ফেলে দলীয় ৪০ রানে ওয়াশিংটনের শিকার হলেন তামিম। বিদায়ের আগে ১৯ বলে ১৭ রান তুলেছেন তিনি। এই নিয়ে প্রথম ৩ ব্যাটসম্যানকেই সাজঘরে পাঠিয়েছেন ভারতীয় এই স্পিনার।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৭ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫৩ রান।

নিদাহাস টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের পঞ্চম ম্যাচ ও নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। টসে জিতে ভারতকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান টাইগার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রান করেছে ভারত। বাংলাদেশের টার্গেট ১৭৭ রান।

ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৯ রান করে ইনিংসের শেষ বলে রান আউট হন রোহিত শর্মা। ৬১ বলে ৫টি চার ও ৫টি ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান রোহিত।

এর আগে দীর্ঘ ২ বছর পরে টি-টোয়েন্টি দলে ফিরেই অধিনায়কের আস্থায় ছিলেন আবু হায়দার রনি। তাইতো ম্যাচের প্রথম ওভারেই রনির হাতে বল তুলে দিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। রনিও অধিনায়কের মান রাখলেন। দারুণ বোলিং করে প্রথম ওভারে দিলেন মাত্র ২ রান।

পরের ওভার থেকেই টানা বোলিং পরিবর্তন। প্রথম ৫ ওভারে আসলেন ৫ বোলার। টাইগারদের আঁটসাঁট বোলিংয়ে সাবধানী খেলেছে ভারতীয় দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। তবে পাওয়ার প্লে তে রানের গতি সামলাতে পারলেও উইকেট পাচ্ছিলো না বাংলাদেশ। অবশেষে ১০ম ওভারে ধাওয়ানকে বোল্ড করে বাংলাদেশকে প্রথম ব্রেকথ্রু এনে দেন রুবেল হোসেন। ২৭ বলে ৩৫ রান করে ফিরে গেলেন তিনি।

প্রথম দিকে রানের গতি কম থাকলেও ধীরে ধীরে রানের গতি বাড়তে থাকে ভারতের। পরবর্তীতে দ্বিতীয় উইকেটে সুরেশ রায়নাকে নিয়ে ১০২ রানের জুটি গড়েন রোহিত। মূলত এ জুটিতে ভর করেই বড় সংগ্রহ পায় দলটি।

রোহিতের সাথে মিলে দারুণ ব্যাটিং করেন রায়না। তার ব্যাট থেকে আসে ৪৭ রান। মাত্র ৩০ বলে ৫টি চার ও ১টি ছক্কায় এ রান করেন তিনি। ধাওয়ান খেলেন ৩৫ রানের ইনিংস। বাংলাদেশের পক্ষে ২৭ রানের খরচায় ২টি উইকেট নিয়েছেন রুবেল।

এর আগে ইনিংসের তৃতীয় ওভারে উইকেট তুলে নেওয়ার সুযোগ ছিল বাংলাদেশের। রুবেল হোসেনের বলে মিডঅনে ক্যাচ তুলেছিলেন রোহিত। তবে দৌড়ে এসে নাগাল পাননি রনি।

নেপালে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় শোকে মুহ্যমান বাংলাদেশর পুরো ক্রিকেট দল। নিহতদের প্রতি শোক জানিয়ে আজ ভারতের বিপক্ষে কালো ব্যাজ পড়ে খেলবে মাহমুদউল্লাহ-মুশফিক-তামিমরা।

আজ নিদাহাস ট্রফিতে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের এটি সপ্তম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। আগের ছয় ম্যাচের একটিতেও জিততে পারেনি টাইগাররা। তবে শ্রীলংকার বিপক্ষে রেকর্ড ভেঙ্গে জয় পেয়ে আত্নবিশ্বাসী বাংলাদেশ শিবির। সেই আত্মবিশ্বাস নিয়েই ভারতের বিপক্ষে নামছেন তামিম-মুশফিকরা।

ভারত তাদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে হার মানলেও পরের দুটি ম্যাচ জিতে ফাইনালে যাওয়ার পথে এগিয়ে রয়েছে। আজ বাংলাদেশের বিপক্ষে তারা জিতলে সবার আগে নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল নিশ্চিত করবে। আর বাংলাদেশ জিতলে ফাইনালে যাওয়ার দাবিদার হয়ে উঠবে।

এ ম্যাচে বাংলাদেশ দলে একটি পরিবর্তন হয়েছে। পেসার তাসকিন আহমেদের জায়গায় এসেছেন আরেক পেসার আবু হায়দার রনি। আর ভারতীয় দলে জয়দেব উনাদকাটের জায়গায় খেলছেন মোহাম্মদ সিরাজ।

বাংলাদেশ একাদশ:

সৌম্য সরকার, তামিম ইকবাল, লিটন দাস, সাব্বির রহমান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম(উইকেটরক্ষক), মেহেদী হাসান মিরাজ, নাজমুল ইসলাম অপু, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন এবং আবু হায়দার রনি।

ভারত একাদশ:

রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, সুরেশ রায়না, মনিশ পান্ডে, রিসভ পান্ত, দিনেশ কার্তিক, ওয়াসিংটন সুন্দর, বিজয় শংকর, জয়দেব উন্দাকাত, যুজবেন্দ্র চাহাল, শার্দুল ঠাকুর।

সময়বাংলা/আইসা

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন