পাসপোর্ট হারালে আপনার করনীয়

বিশেষ প্রতিবেদন: পাসপোর্ট হলো একজন নাগরিকের নাগরিকত্ব প্রমাণের আর্ন্তজাতিক পরিচয় বাহন। বিদেশের মাটিতে আপনার বৈধতার সনদ হচ্ছে পাসপোর্ট ও ভিসা। এই ভিত্তিতেই নির্ধারণ করা হবে আপনি বৈধ, না অবৈধ। তাই পাসপোর্ট যত্ন করে রাখা প্রয়োজন। নিজের প্রয়োজনে নিজের ও আপনজনের নিকট পাসপোর্টের ফটোকপি সংরক্ষন করে রাখতে হবে। পাসপোর্ট হারিয়ে গেলে দ্রুত পদক্ষেপ নিন। আসুন জানি দেশে-বিদেশে পাসপোর্ট হারালে আপনার করনীয়ঃ-

বিদেশে পাসপোর্ট হারানো গেলে করনীয়– বিদেশে গেলে পাসপোর্টের প্রতি আপনাকে বাড়তি সতর্ক হতেই হবে। বিদেশে বৈধ পাসপোর্ট অনেকে অবৈধভাবে বেচাকেনা করে। টাকার বিনিময়ে একজনের বৈধ পাসপোর্ট অবৈধ ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দেয়। যেকোন দেশেই আপনি অসহায় হয়ে যাবেন যদি আপনার বিদেশ ভ্রমণকালে দুর্ঘটনাবশত আপনার মূল্যবান পাসপোর্ট হারিয়ে ফেলেন। বিদেশে পাসপোর্ট হারানো গেলে দ্রুত ঐ দেশের পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করতে হবে কিংবা পাসপোর্টটি যে থানা এলাকায় হারিয়ে গেছে সেই থানায় পাসপোর্ট হারানোর সাধারণ ডাইরী করতে হবে। অন্যথায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সঠিক প্রমাণাদির অভাবে আপনাকে কারাগারেও যেতে হতে পারে। দ্রুত আপনাকে বাংলাদেশের দূতাবাসে যোগাযোগ করতে হবে। পাসপোর্টের ফটোকপি ও রোডপাস বা রাস্তায় চলাচলের প্রত্যয়নপত্র (যদি থাকে) নিয়ে যোগাযোগ করলে দূতাবাসের পক্ষ থেকে আপনাকে নতুন পাসপোর্ট তৈরিতে সহায়তা করা হবে। কোন ট্র্যাভেল এজেন্সি যদি আপনার ভ্রমণে সহায়তা করে থাকে তবে তারাই আপনাকে বাংলাদেশ হাই কমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সহায়তা করবে। এরপর আপনাকে সহায়তা করবে বাংলাদেশ হাই কমিশন। বাংলাদেশের পাসপোর্ট অফিস ও ইমিগ্রেশন আপনার সব তথ্য পর্যবেক্ষণ করে বাংলাদেশ হাই কমিশনকে একটি পত্র বা প্রতিবেদন পাঠাবে। এ পত্র বা প্রতিবেদনই আপনাকে ভালভাবে দেশে ফিরে আসতে সহায়তা করবে।

দেশের মধ্যে পাসপোর্ট হারানো গেলে করনীয়– প্রথমেই পাসপোর্টটি যে থানা এলাকায় হারিয়ে গেছে সেই থানায় পাসপোর্ট হারানোর সাধারণ ডাইরী করতে হবে। পাসপোর্টে যদি কোন দেশের মেয়াদ আলা ভিসা লাগানো থাকে তবে সেই বিষয়টি সাধারণ ডাইরীতে উল্লেখ করতে হবে। কোন ব্যক্তির পাসপোর্ট হারানো বা চুরি হলে থানায় সাধারণ ডায়েরী বা মামলা রুজুর পর পুলিশ ইমিগ্রেশন ডাটাবেজে পাসপোর্টটি কালো তালিকাভূক্ত করবে যাতে উক্ত পাসপোর্ট ব্যবহার করে অন্য কেউ বিদেশ গমন করতে না পারে। তাই হারানো বা চুরি হওয়া পাসপোর্ট পাওয়া গেলে একইভাবে ইমিগ্রেশন ডাটাবেজের কালো তালিকা হতে পাসপোর্টটি প্রত্যাহারের নিমিত্তে থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবরে আবেদন করতে হবে। পাসপোর্ট পাওয়া না গেলে সাধারণ ডাইরীর কপি সহ পূনরায় আবেদন করলে পাসপোর্ট অফিস আপনাকে নতুন একটি পাসপোর্ট দিবে।

জনসচেতনায়- মোঃ সাব্বির রহমান, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত), বাঞ্ছারামপুর মডেল থানা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন