বাড্ডায় মন্দিরে কোরআন পোড়ানোর অভিযোগে মুসল্লিদের বিক্ষোভ: জড়িতদের গ্রেফতারে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

সময় বাংলা ডেস্ক :
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

রাজধানীর পূর্ব মেরুল বাড্ডার নিমতলী মন্দিরে কোরআন শরীফ পোড়ানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় স্থানীয় মুসল্লিরা বিক্ষোভ করে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি দাবি করেছেন। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারে ২৪ ঘণ্টার  আল্টিমেটামও দেন মুসল্লিরা।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের আশ্বাস দেন বাড্ডা থানার ওসি।

বিক্ষুব্ধ মুসল্লিরা জানিয়েছেন, আজ দুপুরে নিমতলী মন্দিরের সামনে থেকে একজন মুসলিম ব্যক্তির কাছ থেকে কোরআন শরীফ ছিনিয়ে নেয় হিন্দু বিমল চন্দ্র। পরে স্থানীয়দের উপস্থিতিতেই বিমল চন্দ্র ও তার সহযোগীরা নিমতলী মন্দিরে গিয়ে সেটি পুড়িয়ে দেয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মুসল্লিরা ওই মন্দির পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দের কাছে ঘটনার বিচার দাবি করেন। ঘটনা শোনার পর মন্দির পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ বিমল চন্দ্রকে তার বাসা থেকে সরিয়ে দেয়। তারা এঘটনার কোন সুষ্ঠু সমাধান দিতে পারেননি।

পরে রাতে এশার নামাজের পর পূর্ব মেরুলের স্থানীয় মসজিদের সামনে জড়ো হন শত শত মুসল্লি। তারা কোরআন শরীফ পোড়ানোর মতো দৃষ্টতার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেন। মুসল্লিদের বিক্ষোভ চলাকালে বাড্ডা থানার ওসি ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের সকালের মধ্যে গ্রেফতারের আশ্বাস দেন।

শীর্ষ নিউজের পক্ষে থেকে এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাড্ডা থানার ওসি ব্যবস্থা নিচ্ছি বলে জানিয়ে মোবাইল ফোনের সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দেন। সূত্র : শীর্ষনিউজ ডটকম

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন