বিএনপি নেতা এম এ আব্দুল গফুরকে জেলহাজতে প্রেরনে নিন্দা ও ক্ষোভ মির্জা ফখরুলের

নিজস্ব প্রতিনিধি: জয়পুরহাট জেলা বিএনপি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পাঁচবিবি উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি এম এ আব্দুল গফুর গতকাল রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মিথ্যা মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করলে তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের ঘটনায় তীব্র নিন্দ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এক বিবৃতিতেবিএনপি মহাসচিব বলেন, “জয়পুরহাট জেলা বিএনপি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পাঁচবিবি উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি এম এ আব্দুল গফুরের জামিন বাতিল করে কারাগারে প্রেরণের ঘটনা-সরকার কর্তৃক দেশব্যাপী বিএনপি নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে বানোয়াট মামলা দায়ের, গ্রেফতার, কারান্তরীণ ও নির্যাতনেরই ধারাবাহিকতা। মিথ্যা মামলায় গতকাল এম এম আব্দুল গফুরের জামিন বাতিল করে কারাগারে প্রেরণ বর্তমান সরকারের হিংসাশ্রয়ী রাজনীতির আরেকটি জঘন্য বহি:প্রকাশ। হত্যা-বিচারবহির্ভূত হত্যা-গুম-অপহরণ-মিথ্যা মামলা দায়ের-গ্রেফতার-কারান্তরীণ এবং দমন-পীড়ণ চালিয়ে দেশের বিরোধী দল বিশেষ করে বিএনপি-কে নিশ্চিহ্ন করে বাংলাদেশে একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠার আকাঙ্খা এদেশের স্বাধীনতাকামী জনগণ কখনোই বাস্তবায়িত হতে দেবেনা।”

বিএনপি মহাসচিব অবিলম্বে জয়পুরহাট জেলা বিএনপি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পাঁচবিবি উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি এম এ আব্দুল গফুর এর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত বানোয়াট মামলা প্রত্যাহার ও নি:শর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান।

অপর এক বিবৃতিতে বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রনোদিত উদ্ভট মামলায় জয়পুরহাট জেলা বিএনপি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পাঁচবিবি উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি এম এ আব্দুল গফুর এর জামিন বাতিল করে কারাগারে প্রেরণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা জোর জবরদখলকারী বর্তমান গণবিচ্ছিন্ন সরকার তাদের বেসামাল অবস্থাকে সন্ত্রাসী কায়দায় সামাল দেয়ার জন্যই দেশব্যাপী বিএনপি’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দসহ সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদেরকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলায় জামিন না দিয়ে কারাগারে আটকিয়ে রাখার ফন্দি এঁটেছে। তিনি অবিলম্বে এম এ আব্দুল গফুরের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ভিত্তিহীন মামলা প্রত্যাহার ও শর্তহীন মুক্তি দাবি করেন।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন