বিবস্ত্র করে ছবি তুলে চাঁদাবাজি, যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

বগুড়া প্রতিনিধি: এক নারী ও ব্যবসায়ীকে বিবস্ত্র করে ছবি তুলে ও ভিডিও করে চাঁদাবাজির অভিযোগ বগুড়া যুবলীগ নেতা লতিফুল করিমসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। শহরতলীর বুজরুকবাড়িয়া গ্রামের বরফ ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান বাদী হয়ে মঙ্গলবার সদর থানায় মামলাটি করেন। আজও সদর থানায় ওই যুবলীগ নেতার বরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে আরো দুটি মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বরফ ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান (৪৮) বুজরুকবাড়িয়া গ্রামের আফসার আলীর ছেলে।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, গত ২৪ মার্চ মান্নান তার পূর্বপরিচিত এক নারীকে নিয়ে প্রতিবেশি বন্ধু এনামুলের বাড়িতে যান। সেখানে বসে কথা বলার সময় যুবলীগ নেতা করিম ও তার সহযোগিরা হামলা চালায়। এক পর্যায়ে দুইজনকে বিবস্ত্র করে পাশাপাশি দাঁড় করিয়ে ছবি তোলা হয়। এসময় যুবলীগ নেতার এক সহযোগি পুরো ঘটনাটি ভিডিও করেন।

মামলা অভিযোগ করা হয়, মারপিট করার পর ভিডিও ও ছবি প্রকাশ করার হুমকি দিয়ে ওই ব্যবসায়ীর কাছে ৫ লাখ চাঁদা দাবি করেন করিম। এসময় বাড়ির মালিক এনামুল ও মান্নানের ছোট ভাই আব্দুল হান্নানকে ডেকে এনে ব্যাপক মারপিট করা হয়।

বাদী বলেন, ৫০ হাজার টাকা নিয়ে রাত ৯টায় তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। প্রচণ্ড মারপিটের কারণে এনামুলের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় আসামিরা তাকে চিকিৎসার কথা বলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। তার খোঁজ এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা লতিফুল করিম মোবাইল ফোনে জানান, ওই এলাকায় যুবলীগের দুইগ্রুপে মারামারি হয়েছে বলে শুনেছেন। কাউকে ব্লাকমেইল করে চাঁদা আদায়ের তথ্য সঠিক নয়।

জেলা যুবলীগের সভাপতি শুভাশিষ পোদ্দার লিটন জানান, অভিযুক্ত লতিফুল করিম তাদের সংগঠনের সদস্য।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সনাতন চক্রবর্তী যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে থানায় মামলা হওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, পুলিশি তদন্তে ঘটনার সত্যতা মিলেছে। এখন আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

তিনি জানান, ওই যুব লীগ নেতার ‍বিরুদ্ধে থানায় আজও দুইটা চাঁদাবাজির অভিযোগে মামলা হয়েছে।

সময়বাংলা/আইসা

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন