ভেঙেছে ডান হাত, শিশুর বাম হাতে প্লাস্টার

সময়বাংলা, ডেস্ক: ডান হাত ভেঙেছিল শিশুটির। কিন্তু প্লাস্টার করা হয়েছে বাম হাতে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সিউড়ি থানার একটি হাসপাতালে। ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে হাসপাতাল চত্বরে। এই ঘটনায় শিশুটির পরিবার ও আত্মীয়রা ক্ষোভ জানিয়েছে। অভিযুক্ত চিকিৎসকের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন শিশুটির মা।

সিউড়ি থানার অন্তর্গত পাথর চাপড়ি গ্রামের বাসিন্দা মতিনা বিবি। তার দেড় বছরের ছেলে শেখ সাহদরের ডান হাত ভেঙেছিল। চিকিৎসার জন্য সাহদরকে সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে নিয়ে আসেন মতিনা বিবি। সেখানে তার এক্সরে করা হয়।

এরপরই ডাক্তার বলেন, ভাঙা হাড় জোড়া লাগাতে হাতে প্লাস্টার করতে হবে। সে অনুযায়ী শুক্রবার রাতে প্লাস্টার করা হয়। কিন্তু প্লাস্টারের পর দেখা যায় ডান হাতের বদলে ডাক্তার দেড় বছরের শিশুর বাম হাতে প্লাস্টার করে দিয়েছেন।

বিষয়টি পরিবারের নজরে আসতেই হাসপাতালে জানান তারা। মতিনা বিবি বলেন, ‘আমার ছেলের ডান হাত ভেঙে গিয়েছিল। কিন্তু ডাক্তাররা কীভাবে বাম হাতে প্লাস্টার করলেন সেটাই বুঝে উঠতে পারছি না। ব্যথায় ছটফট করছে আমার ছেলে। আমি চাই যে ডাক্তার এমন কাজ করেছে, তার যেন কঠিন শাস্তি হয়।’

তার আরও অভিযোগ, ‘আমি প্রতিবাদ করতে গেলে, শিশুর ভর্তি ও এক্সরের সমস্ত কাগজপত্র কেড়ে নেওয়া হয় আমার কাছ থেকে।’ নিজের অভিযোগ হাসপাতাল সুপারের কাছে লিখিতভাবে জানাবেন বলেও জানান মতিনা বিবি। এই ঘটনায় মুখে কুলুপ এঁটেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কারও কাছ থেকে এই বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

সময়বাংলা/আইসা

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন

এ বিভাগের আরো খবর