মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরে ২য় সর্বোচ্চ ব্যক্তির সাথে সাদীর সৌজন্য সাক্ষাত

কুটনৈতিক প্রতিনিধি: মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরে ২য় সর্বোচ্চ ব্যক্তি, ডেপুটি সেক্রেটারী অফ স্টেট জন জে সুলিভানের সাথে বিএনপি চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাবেক বৈদেশিক উপদেষ্টা ও বিএনপির বিশেষ দূত জাহিদ এফ সরদার সাদী এক সৌজন্য সাক্ষাত করেন।

এই সময় মার্কিন কংগ্রেসের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির (হাউজ ফরেন এফেয়ার্স কমিটি) চেয়ারম্যান প্রভাবশালী কংগ্রেসম্যান এড রয়েস ও উপস্থিত ছিলেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর গত বছরের মে মাসে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরে ২য় সর্বোচ্চ ব্যক্তি, ডেপুটি সেক্রেটারী অফ স্টেট হিসাবে জন জে সুলিভান’কে নিয়োগ দেন। এর পুর্বে প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ সরকারে দুই টার্ম বানিজ্য মন্ত্রী ছিলেন এই প্রভাবশালী রিপাবলিকান।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের পাশা পাশি ডেপুটি সেক্রেটারী অব স্টেট সুলিভান মার্কিন প্রেসিডন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মন্ত্রী পরিষদের একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি। জনাব সুলিভান ডেপুটি সেক্রেটারী অব স্টেট এর পাশা পাশি প্রেসিডন্ট ট্রাম্প এডমিনিস্ট্রেশনের পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা ও জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের নীতিনির্ধারকদের মধ্যে অন্যতম।

এদিকে বিএনপি চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মামলার রায় নিয়ে উত্তাল প্রবাসের রাজনীতি। এনিয়ে সক্রিয় রয়েছে বিভিন্ন দেশে থাকা দলটির প্রবাসী নেতাকর্মীরা। রায়কে কেন্দ্র করে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে আমেরিকা, ইউরোপ, এশিয়া, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিএনপির নেতাকর্মীরা একযোগে বিক্ষোভ সমাবেশ, মানববন্ধনসহ লাগাতার কর্মসূচি ঘোষণা করছেন। বিএনপি সূত্র জানিয়েছে, আগামী ১ ফেব্রুয়ারি প্রবাসে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সংশ্লিষ্ট দেশে পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন করবেন। সমাবেশ ও মানববন্ধন শেষে স্মারকলিপি দেয়ারও কথা রয়েছে।

দেশের বাইরে বিএনপির আন্দোলন নিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাবেক বৈদেশিক উপদেষ্টা ও বিএনপির বিশেষ দূত জাহিদ এফ সরদার সাদী জানান, দেশের বাইরে আমাদের যে সকল শাখা আছে সেখান থেকে সবাই শক্তিশালী প্রতিবাদ করবে, বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যা রায় দেয়া হলে জনগণ তা মেনে নেবে না। ষড়যন্ত্রমূলক রায় হলে তা প্রত্যাখ্যানসহ সরকার পতনে যা করণীয় তা করতে প্রস্তুত জাতীয়তাবদী দল। ক্ষমতায় পাকাপোক্ত করতে যদি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে যদি মিথ্যা মামলার মিথ্যা রায় দেওয়া হয় তাহলে প্রবাসে এমন আন্দোলন গড়ে তোলা হবে যা সরকারের পতন ঘটিয়ে শেষ হবে।

এদিকে যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক ও সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমদের নেতৃত্ব বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

যুক্তরাষ্ট্র: ঐক্যবদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি ৫ই ফেব্রুয়ারি থেকে হোয়াইট হাউস, স্টেট ডিপার্টমেন্ট, জাতিসংঘের সামনে লাগাতার বিক্ষোভ কর্মসুচির ঘোষনা দিয়েছে।

ফ্রান্স: ফ্রান্স বিএনপির উদ্যোগে ফ্রান্স পরাষ্ট মন্ত্রনালয়ের সামনে স্থানীয় সময় বিকাল ২.৩০ মিনিটের সময় বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্টিত হবে। একই সাথে পরাষ্ট মন্ত্রনালয়ে স্বারকলিপি দেওয়া হবে।

জার্মান: জার্মান বিএনপির সভাপতি আকুল মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক গনি সরকার,যুগ্ম সম্পাদক মুস্তাক আহমেদের নেতৃত্ব বার্লিন পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে জার্মান পরাষ্ট মন্ত্রনালয়ে স্মারক লিপি দিবেন।

বেলজিয়াম: বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি আহমেদ সাজা ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বাবুর নেতৃত্ব বেলজিয়াম পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নেতাদের কাছে স্বারক লিপি দিবেন।

আয়ারল্যান্ড: আয়ারল্যান্ড বিএনপির সভাপতি হামিদুল নাসির ও সাধারণ সম্পাদক কবির আহমদের নেতৃত্ব ডাবলিন পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।সমাবেশ শেষে পরাষ্ট মন্ত্রনালয়ে স্মারক লিপি দিবেন।

এছাড়া ও আমেরিকা, কানাডা, অষ্টেলিয়া ইউরোপের যুক্তরাজ্য, অস্ট্রিয়া, পর্তুগাল, ফ্রান্স, হল্যান্ড, ডেনমার্ক, স্পেন, সুইডেন, নরওয়ে, ফিনল্যান্ড, রাশিয়া, বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে ও প্রত্যক দেশের পরাষ্ট মন্ত্রনালয়ে স্মারক লিপি দেওয়া হবে বলে বিএনপি সূত্রে জানাগেছে।

এশিয়ার, মালেশিয়া, কোরিয়া, জাপান, সৌদিআরব, কাতার, কুয়েত, জর্ডান, লেবানন, বাহরাইন, আরব আমিরাত, ওমান, মালদ্বীপ, দেশের পরাষ্ট মন্ত্রনালয়ে স্মারক লিপি দেওয়ার কথা রয়েছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন