রাজধানীতে টিভি উপস্থাপিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ

রাজধানীর কদমতলী থানার শনির আখড়ায় একটি টেলিভিশনের উপস্থাপিকা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। গতকাল বুধবার রাতে ওই টিভি উপস্থপিকা তার সহকর্মী শরিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। তাকে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ভুক্তভুগী ওই তরুণী উপস্থাপনার পাশাপাশি অভিনয়ও করেন। এছাড়াও এই তরুণী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। অভিযুক্ত ধর্ষকও অভিনয় পেশার সঙ্গে জড়িত।

গত ২ আগস্ট ধর্ষণের ঘটনা ঘটলেও তিনি গতকাল বুধবার রাতে কদমতলী থানায় অভিযোগ করেন। ধর্ষণের ঘটনাটি গোপনে ভিডিও করে ধর্ষক উপস্থাপিকাকে নিয়মিত ব্লাকমেইল করে আসছিল।

কদমতলী থানার ওসি ওয়াজেদ আলী বলেন, উপস্থাপিকার পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ তারা পেয়েছেন। একটি মামলা হয়েছে। তবে অভিযুক্ত অভিনেতা পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে।

কদমতলীর থানা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ঘটনার দিন উপস্থাপিকা তার পূর্ব পরিচিত ওই অভিনেতার সঙ্গে শনির আখড়ার নূরপুর এলাকায় বোনের বাসায় আড্ডা দিচ্ছিলেন। তখন বাসায় বোন উপস্থিত ছিলেন না। এই সুযোগে ওই অভিনেতা তাকে ধর্ষণ করে। পাশাপাশি ধর্ষণের দৃশ্য গোপনে ভিডিও করে রাখে। পরে তরুণী এ বিষয়ে পুলিশের কাছে যেতে চাইলে তাকে বিয়ে করার আশ্বাস দেয়। পরে ওই তরুণী খোঁজ নিয়ে জানেন ওই অভিনেতা বিবাহিত। একপর্যায়ে ওই ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেয় অভিনেতা। এ নিয়ে ক’দিন ধরে তরুণীকে ব্লাকমেইল করে আসছিল ওই যুবক। শেষ পর্যন্ত আর সহ্য করতে না পেরে গতকাল রাতে পুলিশের কাছে যান তিনি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন