রায়পুরে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ নিহত এক, অস্ত্র-গুলি উদ্ধার

download6দেলোয়ার হোসেন মৃধ্যা, সময় বাংলা, লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আলমগীর হোসেন (৩০) নামে এক ব্যাক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, আলমগীর তালিকাভুক্ত ডাকাত সরদার।

এসময় পুলিশের এসআই ফারুক আহম্মেদ চার পুলিশ সদস্য আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র -গুলি ও কয়েকটি ডাকাতির সরঞ্চাম উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত আলমগীর চরমোহনা ইউনিয়নের দক্ষিণ রায়পুর গ্রামের পানছাদ বাড়ীর মৃত তাজুল ইসলাম ওরফে লেদা মিয়ার ছেলে।

সোমবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলার চরমোহনা ইউনিয়নের দক্ষিণ রায়পুরের মালের বাড়ীর সুপারি বাগানে এ ঘটনা ঘটে। তার মরদেহ লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। সামান্য আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- এসআই ফারুক আহাম্মেদ, কনস্টেবল সফিক, কমর ও ওহিদ। তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ লোকমান হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঘটনার সময় দক্ষিণ রায়পুর গ্রামে পুলিশ অভিযানে যায়। এসময় ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে কয়েক রাউন্ড পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে আলমগীর নামে এক ডাকাত গুলিবিদ্ধ হলে অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে সদর হাসপাতালে নিলে ডাক্তার মৃত ঘোষনা করে। তার বিরুদ্ধে থানায় ৭টি ডাকাতি মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন