লেবাননে ইয়াবাকে ঘিরে বাংলাদেশীদের সমস্যাসঙ্কুল পরিস্থিতি!

সময়বাংলা, লেবানন : এ সমাজে অনেক মানুষ আছে যারা নেতিবাচক চিন্তা করে। নেতিবাচক চিন্তা করার ফলে তারা কাজও করে অনেক খারাপ, অনেক ভয়ঙ্কর। সেটার কুফল সে একা ভোগ করে এমন নয়, পুরো পরিবারকে বহন করতে হয়, এমনকি জাতিকেও। ঠিক তেমনিভাবে কিছু ইয়াবা ব্যবসায়ীর কারণে কুফল ভোগ করতে হচ্ছে লেবাননে অবস্থানরত খেটে খাওয়া সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশীদের। যা বাংলাদেশীদের জন্য লেবাননে বড় বিপর্যয় ও সমস্যাসঙ্কুল পরিস্থিতির কারণ।

সম্প্রতি গত ২৪, ২৫, ২৬ ও ২৭ তারিখে মার এলিয়াস, আল জিদানাহ এবং নাবা অঞ্চলে লেবানন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিশেষ অভিযানে ইয়াবাসহ নয় বাংলাদেশিকে আটক করা হয়। এ খবর স্থানীয় প্রিন্ট এবং ইলেকট্রিক মিডিয়ার মাধ্যমে ছড়িয়ে পরে লেবাননের সবত্র। এরপর থেকেই শুরু হয় এদেশীয় লেবানিজ কর্তৃক বাংলাদেশীদের উপর নির্যাতন।

জানা যায়, ইয়াবা বিক্রি এবং সেবন করে এমন অপবাদ দিয়ে লেবানিজরা শারীরিকভাবে নির্যাতন করেছে এ পর্যন্ত তিন বাংলাদেশীকে। পরে খবর পেয়ে সেখানকার বাংলাদেশীরা স্থানীয় লেবানিজদের সহযোগীতায় তাদেরকে উদ্ধার করেছেন। উদ্ধারকৃতরা হলেন, মোঃ আল-আমীন(২৭), সুমন (৪০) এবং বিল্লাল (৩২)। কাজ শেষে তারা সবাই বাসায় ফিরছিলেন। বৈরুতের আলবস্তা নামক এলাকায় গত (২ এপ্রিল) সোমবার এ ঘটনাটি ঘটেছে। অথচ নির্যাতনের শিকার তিন বাংলাদেশীর কেউ ইয়াবার সাথে জড়িত নয়। লেবাননে তাদের বয়স ৬/৮/১১ মাস। লেবাননের হাওয়াও ভালোভাবে তাদের গায়ে লাগে নি।

গুটিকয়েক অসাধু ব্যক্তিদের জন্য খেসারত দিতে হচ্ছে এদেশে অবস্থানরত সকল বাংলাদেশীর। যা ভবিষ্যৎকালে আরো ভয়াবহ রূপ ধারণ করবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশীরা।

স্থানীয় প্রবাসী বাংলাদেশীদের মতে, ইয়াবার সাথে জড়িত ব্যক্তিদেরকে সমূলে উপড়ে ফেলা হোক। কিন্তু খেটে খাওয়া সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশীদের যেন কোনরকম সমস্যা কিংবা ক্ষতির কারণ না হয় এজন্য মান্যবর রাষ্ট্রদূত মহোদয়ের আশু দৃষ্টি কামনা করছেন স্থানীয় প্রবাসী বাংলাদেশীরা।

উল্লেখ্য, মান্যবর রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার বিভিন্ন সভা, সেমিনারে প্রবাসী বাংলাদেশীদেরকে সতর্ক হওয়ার জন্য বারবার তাগিদ দিলেও তারা সতর্ক হয়নি। এমনকি নেতিবাচক চিন্তার কারণে এসব অপকর্ম থেকে ফিরেও আসেনি। ফলে এর ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশীদেরই।

এ বিষয়ে রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার বলেন, এ ব্যাপারে আমি লেবাননের জেনারেল সিকিউরিটিতে কথা বলবো। যেন সাধারণ প্রবাসীদের কোন ক্ষতি না হয়। এই ধরনের কোন ঘটনার শিকার হলে তাৎক্ষুনিকভাবে দূতাবাসকে অভিহিত করতে সকল প্রবাসী বাংলাদেশীদের অনুরোধ করেন তিনি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন