সাধারণ গণিতের প্রশ্নফাঁস, এসএসসি, ২০১৭

সময়বাংলা, ঢাকা:
১. প্রশ্নফাঁসের রিপোর্ট প্রকাশ : ১১ই ফেব্র“য়ারী (রাতে)

২. পরীক্ষা গ্রহণ : ১২ই ফেব্র“য়ারী (সকালে)

৩. ফাঁস হওয়া প্রশ্নের সাথে হুবহু মিলে যাওয়ার রিপোর্ট প্রকাশ : ১২ই ফেব্র“য়ারী (দুপুরে)

৪. বোর্ডে গণিত খাতা প্রেরণ : ১২ই ফেব্র“য়ারী (বিকেলে)

৫. শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণা-১ (গণিত পরীক্ষা বিষয়ে) : ১৩ই ফেব্র“য়ারী, সচিবালয়ে:
অভিযোগ প্রমাণিত হলে পরীক্ষা আবারও নেয়া হতে পারে। একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

৬. শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণা-২ (গণিত পরীক্ষা বিষয়ে) : ১৪ই ফেব্র“য়ারী, সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে: এখনই পরীক্ষা বাতিল হচ্ছে না। যাচাই-বাছাই করা হবে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

৭. বোর্ড কর্তৃক পরীক্ষক অনুযায়ী গণিত খাতা বণ্টনের প্রস্তুতি : ১৩-২০শে ফেব্র“য়ারী

৮. বোর্ড থেকে পরীক্ষকদের ৫০০ করে গণিত খাতা গ্রহণ : ২০/২২শে ফেব্র“য়ারী

৯. হেড এক্সামিনরের কাছে ১ম কিস্তির ৩০০ খাতা জমাদান : ২৭শে ফেব্র“য়ারী

১০. হেড এক্সামিনরের কাছে ২য় কিস্তির ২০০ খাতা জমাদান : ২রা মার্চ

১১. হেড এক্সামিনর কর্তৃক ২০০০ খাতা নিরীক্ষণ করে ওএমআর শীট বোর্ডে জমাদান : ৮/১০ই মার্চ

১২. বোর্ড কর্তৃক ফলাফল তৈরীর প্রক্রিয়া : এপ্রিল ২০১৭

১৩. রেজাল্ট প্রকাশ : ৪ঠা মে ২০১৭
.
শিক্ষামন্ত্রীর কথিত তদন্তের কি হয়েছিল? এই ফাসিষ্ট সরকার ও শাসকশ্রেণী পরিকল্পিতভাবে আমাদের সন্তানের শিক্ষাকে ধ্বংস করছে। এবারও শুরু থেকেই প্রশ্নফাঁস হতে দিচ্ছে। একে প্রতিহত করুন। (রাখাল রাহা, আহ্বায়ক, শিক্ষা ও শিশু রক্ষা আন্দোলন (শিশির)

সময়বাংলা/জস

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন

এ বিভাগের আরো খবর