সিঙ্গাইর ডিগ্রী কলেজ ছাত্রদল নেতা সোহাগকে ছাত্রলীগ নেতার মারধর

সময় বাংলা: জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট মামলার রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপির নৈরাজ্য ঠেকাতে সিঙ্গাইর ডিগ্রী কলেজ ছাত্রদল নেতা ইমরান সরকার সোহাগকে মারধর করেছে একই কলেজের ভিপি ফারুক হোসেন মিরু ও তাঁর লোকজন। বুধবার সন্ধা ৭টার দিকে সিঙ্গাইর বাজার এলাকায় এঘটনা ঘটে। সোহাগের বাড়ি উপজেলার গোবিন্দল গ্রামে। তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানান, জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট মামলার রায়ের আগের দিন সন্ধায় ইমরান সরকার সোহাগ সিঙ্গাইর বাজারে অবস্থান করছিল। এসময় উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক ফারুক হোসেন মিরু ও তাঁর লোকজন সোহাগকে ধরে সিঙ্গাইর গরুর হাটে নিয়ে মারধর শুরু করে। পরে সোহাগের আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়।

স্বজনরা জানান, সোহাগ সন্ধার দিকে পাওনা টাকা আনার জন্য সিঙ্গাইর বাজারে গিয়েছিল। সেখানে ফারুক হোসেন মিরু ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অনাকাঙ্খিতভাবে তাঁকে মারধর করেছে। তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

মারধরের কথা স্বীকার করে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক ও সিঙ্গাইর কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি ফারুক হোসেন মিরু বলেন, ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট মামলার রায়কে কেন্দ্র করে ইমরান সরকার সোহাগ ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা নাশকতা সৃষ্টির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। বিষয়টি বুঝতে পেরে সোহাগকে মারধর করা হয়। ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপির নেতাকর্মীরা কোন ধরণের নৈরাজ্য সৃষ্টির চেস্টা করলে তাঁদের কঠোর হাতে প্রতিহত করা হবে বলে তিনি জানান।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন