হায়দরগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্লাসরুম সংকটে ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষার্থীদের পাঠদান

schoolদেলোয়ার হোসেন মৃধ্যা, সময় বাংলা, লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার হায়দরগঞ্জ রোকেয়া হাসমতের নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি দীর্ঘদিন ধরে ভবন সংকট, পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থা, কমনরুম, ওয়াশরুম, রিডিংরুম, বিজ্ঞানের সরঞ্জাম, কারিগরি শিক্ষা উপকরণ, মানসম্মত ক্যান্টিন ও নামাজ বা ইবাদত করার স্থান না থাকায় শিক্ষার্থীদের পাঠদান চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

নিয়মিত শরীর চর্চা খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক চর্চার উপযুক্ত না থাকায় শিক্ষার্থীরা মেধা বিকাশ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের তুলনায় পর্যাপ্ত পরিমান ভবন না থাকায় নিরুপায় হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ক্লাসরুমে পাঠদান কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করছে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিনে গেলে জানাযায়, বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ৭৩৫ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। এদের ক্লাসে বসার জন্য ৭টি শ্রেণি কক্ষ রয়েছে। তার মধ্যে ৩টি কক্ষের অবস্থা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। যে কোন মুহুর্তে দেয়াল অথবা ছাদ ধসে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। প্রতিটি বেঞ্চে ৪ জন ছাত্রীর বসার কথা থাকলেও ৭-৮শিক্ষার্থী বসতে হয়। শিক্ষার্থীর উপস্থিতি বেশি হলে অনেকে দাঁড়িয়ে ক্লাস করতে দেখা যায়। স্কুলের একটি বিজ্ঞানাগার থাকলেও নেই কোন উপকরণ। স্কুলের সামনের একমাত্র সড়কটিরও বেহাল অবস্থা। সড়কটি দিয়ে স্কুলের ছাত্রীরা আসার পথে প্রায়ই দূর্ঘটনায় ঘটে।

এ ব্যাপারে স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ জাকির হোসেন বলেন, স্কুলে পর্যাপ্ত শ্রেণিকক্ষ না থাকায় ছাত্রীদের ক্লাসেরুমে বসতে দিতে পারি না। সরকার কর্তৃক নির্ধারিত আইসিটি বিষয়ক শিক্ষক, চারুকারু সহ কয়েকজন শিক্ষক না থাকায় পাঠদান ব্যাহত হচ্চে প্রকট ভাবে। অবিলম্বে গরিব ছাত্রীদের কথা বিবেচনা করে কর্তৃপক্ষ যেন ভবন নির্মাণ করে ছাত্রীদের ক্লাসরুমের ব্যবস্থা গ্রহন কারার জন্য দাবি জানাচ্ছি।

রায়পুর উপজেলা চেয়ারম্যার মাষ্টার আলতাফ হোসেন বলেন, ইতিমধ্যে বিদ্যালয়ের ওয়াশরুমের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বিদ্যালয়ের ভনব নির্মাণের আবেদন করলে সার্বিক সহযোগীতা করা হবে।

রায়পুরের ভারপ্রাপ্ত উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কামাল হোসেন বলেন, স্কুলটি আমি পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। ছাত্রীদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমান বেঞ্চ এবং ক্লাসরুম না থাকায় পাঠদানে সমস্যা হচ্ছে। স্কুল কর্তৃপক্ষ আবেদনের প্রেক্ষিতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন