২০১৬ইং কে বরণ করেনিল লেবানন প্রবাসিরা

সময় বাংলা/লেবানন :

Untitled-1নানান উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ইংরেজী নতুন বছর ২০১৬কে বরণ করে নিয়েছে লেবানন প্রবাসি বাংলাদেশিরা। গতকার লেবাননের হাইছিল্লুম এলাকায় একটি আবাসিক হোটেলের হল রুমে বর্ষবরন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যান সংগঠন লেবানন এর নেতৃবৃন্দ।

অতীতের চেয়ে একটু ভিন্ন ভাবে আয়োজন করেন অনুষ্ঠান টি। বিগত দিনে লেবাননে বর্ষবরণকে কেন্দ্র করে এমন অনুষ্ঠান দেখা যায়নি। উপস্থিতির ছিল বিশাল আকারে রাত এগারটায় কানায় কানায় ভরে উঠে হল কক্ষ,তিল পরিমান জায়গাছিলনা তবুও প্রবাসিরা অনুষ্ঠান দেখতে আসেন। এমন উপচেপরা ভিরের মধ্যেও প্রবাসিরা আন্নন্দ উল্লাসে মেতে উঠে।

শ্রমিক কল্যান সংগঠনের এই বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ঠ্য ব্যবসায়ী এবং সংগঠনেরে সভাপতি ওসমান গনী।

ওসমান গনী আমাদের জানান, লেবাননে এমন অনুষ্ঠান এই প্রথম, তিনি চেষ্টা করবে আগামীতেও প্রবাসিদের নিয়ে এমন অনুষ্ঠান করবেন এবং আগামী বাংলার বর্ষবরণ এর চাইতেও বিশাল আকারে করার পতিশ্রুতি দেন। সব শেষে তিনি বিশ্বের সকলকে ইংরেজী নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান।

অন্যদিকে এক প্রবাসি জানান, তিনি খুব খুশি এমন অনুষ্ঠানে আসতে পেরে, তিনি লেবাননে নতুন, কিছুদিন হল এসেছেন,তিনি ভাবতেই পারেনি লেবাননে এমন ভাবে বর্ষবরণ হতে পারে।

রাত ১১:৫৫মিনিটে জাতীয় সংগীত গেয়ে উঠে প্রবাসিরা, মিউজিক বাজিয়ে নয় নিজেদের কন্ঠে “আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালবাসি” গেয়ে উঠলে এক  বিশাল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। উপস্থিত সকলে দাড়িয়ে একসাথে জাতীয় সংগীত গেয়ে উঠে। সে সময় হোটেলের লেবানিস এবং ভিজিটে আসা অনেক ভিনদেশরাও দেখতে আসেন বাংলাদেশিদের বর্ষবরণ।

রাত বারটা বাজার সাথে সাথে প্রধান অতিথি ওসমান গনী কেক কেটে নতুন বছরকে বরন করে নেন। সবাই একসাথে বলে উঠে হ্যাপী নিউ ইয়ার ২০১৬।

শুরু হয় আনন্দ উল্লাস। ইংরেজী,হিন্দী,আরবী এবং বাংলা গানের মিউজিক বাজিয়ে সবাই একসাথে আনন্দে মেতে উঠে। যদিও প্রবাসে তবুও “এই বাংলা আমার প্রিয় তাই ,বিশ্ব দেখার ইচ্ছে নাই” গান বাজিয়ে নেচে গেয়ে আনন্দ করতে থাকেন। রাত ৩টা পর্যন্ত চলে এই অনুষ্ঠান।

পরিশেষে সবাই এক নৈশভোজে মিলিত হন।Untitled-2

বৈরুত এয়ারপোর্টে কর্মরত শ্রমিকদের কম্পানী সেরকি কামাল গিলিয়ানীর স্বার্বিক সহযোগীতার যারা অনুষ্ঠান কে সাফল্য মন্ডি করে তুলেছেন, সুমন মিয়া, আশিকুর রহমান, মাসুদ রানা, রতন, সালেহ উদ্দীন, সফিফুল ইসলাম, উজ্জল মিয়া, কোমল, সিরাজ দাদা, হোসেন মিয়া, ইয়াছিন, মিন্নত আলী, হাবিব, মাইনুদ্দীন, রাবিব খাঁন, মুস্তফা কামাল, আব্দুল হামিদ, মামুন খাঁন, রেজাউল ইসলাম,সাগড় আহমেদ, সাহিন মিয়া, গনি মিয়া, কহিনুর, মনি, শারমিন, সপ্না, তাইজুল ইসলাম, আব্দুল্লাহ মিয়া, রাসেল মিয়া, আব্দুল করিম, ইয়াসিন মাতাব্বর, জিয়াউল হক, আলা খাঁন, আবুল কাশেম, তয়ুব মিয়া, পারভীন আক্তার, মামুন ইসলাম, আবুল রহিম, জাহাঙ্গীর, দুদু মিয়া।

বিশাল এই অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন, ইব্রাহীম খাঁন ও ছিদ্দীকুর রহমান।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন