ইরানের ওপর ফের মার্কিন নিষেধাজ্ঞার পরিকল্পনা

সময় বাংলা ডেস্ক : 

iran mohora ap picযুক্তরাষ্ট্র আবার নতুন করে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞার প্রস্তুতি নিচ্ছে। মার্কিন গণমাধ্যমের খবরে একথা বলা হয়েছে।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বুধবার বলা হয়, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র উন্নয়নে সহায়তার অভিযোগে ইরান, হংকং এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের ১২ কোম্পানি ও ব্যক্তিকে টার্গেট করা হবে।

যুক্তরাষ্ট্র বলছে, গত অক্টোবর ও নভেম্বরে ইরান ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র উন্নয়নের ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র দাবি করছে, ওই পরীক্ষার একমাত্র উদ্দেশ্য ছিল পরমাণু বোমা তৈরি।

তবে ইরান বলছে,  চলতি বছরের শুরুর দিকে যুক্তরাষ্ট্র  এবং অপর পাঁচটি বিশ্বশক্তির সঙ্গে ইরানের পরমাণু চুক্তি অনুসারে নিষেধাজ্ঞা আরোপের সুযোগ নেই।

এদিকে তিনটি পশ্চিমা যুদ্ধজাহাজের কাছে ইরানি নৌবাহিনী বেশ কয়েকটি রকেট উৎক্ষেপণ করেছে বলে জানিয়েছে মার্কিন সামরিক বাহিনী। পারস্য উপসাগরে গত সপ্তাহে ওই পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণের ঘটনা ঘটে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তা মঙ্গলবার বলেন, কোনো রণতরীকে লক্ষ্য করে ওই রকেট উৎক্ষেপণ করা হয়নি। রকেট উৎক্ষেপণের বিষয়ে কড়া নজর রাখা হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

এনবিসি নিউজকে তিনি আরো বলেন, বিমানবাহী রণতরী ইউএসএস হ্যারি এস ট্রুম্যানের প্রায় ১৫০০ মিটার দূরে একটি রকেট আঘাত হানে।

রণতরীটি হরমুজ প্রণালীতে অবস্থান করছে। একই এলাকায় ফরাসি ফ্রিগেট ও ইউএসএস বাল্কেলে ডেস্ট্রয়ার জাহাজও অবস্থান করছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

গত ২৬ ডিসেম্বর ওই রকেট উৎক্ষেপণের ঘটনা ঘটে। এর আগে ইরানি বাহিনীর পক্ষ থেকে পরীক্ষামূলক রকেট উৎক্ষেপণের ঘোষণা ও এ সংক্রান্ত সতর্কতা জারি করা হয়।

পারস্য উপসাগর কৌশলগতভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বের এক তৃতীয়াংশ তেল এখান থেকে পরিবাহিত হয়। এখানে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে অতীতে উত্তেজনা ছিল। ১৯৮৮ সালে একদিনের যুদ্ধে অবতীর্ণ হয় দেশ দুটি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন