শেখ হাসিনার পদত্যাগের দাবীতে অস্ট্রেলিয়া বিএনপি’র সমাবেশ

>সময় বাংলা,অস্ট্রেলিয়া :
astralia bnp picসম্প্রতি অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচন ও ৫ জানুয়ারির ভোটারবিহীন তামাশার জাতীয় নির্বাচনে গঠিত পার্লামেন্টকে বাতিল করে শেখ হাসিনা এবং মেরুদণ্ডহীন নিবার্চন কমিশনার রকিব উদ্দিনের পদত্যাগের দাবীতে গত ১০ই জানুয়ারি ২০১৬ রোজ রবিবার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদীদল বিএনপি অঙ্গ সহযোগী সংগঠন অস্ট্রেলিয়ার উদ্যেগে এক সমাবেশ সিডনির রকডেলে বনফুল ফাংশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। 
 
পবিত্র কোরআন তেলোওয়াতে মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরুর পরপরই বাংলাদেশ স্বাধীনতা সংগ্রাম ও বাংলাদেশে গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে নিহত সকল শহীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা । 
বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক এম.মনজুর সরওয়ার বাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবকদল কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো:মোসলেহউদ্দিন হাওলাদার আরিফ।
 
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার সাবেক সাধারন সম্পাদক লিয়াকত আলী স্বপন ,যুবদল অস্ট্রেলিয়ার সভাপতি ইয়াসিন আরাফাত সবুজ, জিয়া পরিষদ অস্ট্রেলিয়ার সভাপতি মো: নাসিম উদ্দিন আহমেদ, জিয়া পরিষদ অস্ট্রেলিয়ার সহ-সভাপতি ব্যারিস্ট্রার আবু বারী সিদ্দিক রিপন, নিউসাউথ ওয়েলস বিএনপি’র সভাপতি কামরুল ইসলাম শামীমএবং জাসাস অস্ট্রেলিয়া শাখার সভাপতি আবদুস সামাদ শিবলু । 
 
এ ছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন জিয়া পরিষদ অস্ট্রেলিয়ার সাধারন সম্পাদক কামরুল হাসান আজাদ, নিউসাউথ ওয়েলস বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সম্পাদক মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন,যুবদল অস্ট্রেলিয়ার সহসভাপতি রতন আহমেদ,স্বেচ্ছাসেবকদল সাংগঠনিক সম্পাদক মৌয়াইমেন খান মিশু, জাসাস সিনিয়র সহসভাপতি ইকবাল মাহমুদ মাসুদ,নিউ সাউথ ওয়েলস স্বেচ্ছাসেবকদল সভাপতি খায়রুল কবির পিন্টু, নিউ সাউথ ওয়েলস স্বেচ্ছাসেবকদল সাধারন সম্পাদক সাইমুন বিন শামস। বিএনপির নেতৃবৃন্দ মধ্যে আর ও উপস্থিত ছিলেন যুবদল অস্ট্রেলিয়া সাংগঠনিক সম্পাদক মো.আবুল কাশেম,আবুল কালাম আজাদ,শাহাবুর রহমান,পারভেজ আলম,মো:মামুনুর রশিদ,শফিকুররহমান ভূইয়া,মো.জাহেদ আবদীন,মো.মিজানুর রহমান,মো.আনিসুররহমান,রাসেল মিয়া,আসিফ ইকবাল,মোহাম্মদ ইসলাম,আসিকুল ইসলাম,মোহাম্মদ জুলফিকার আলী,সিরাজুল ইসলাম,মো.রফিকুল ইসলাম, আবদুলমোতালেব,সাইয়েদ রহমান,মো.কামাল হোসেন,মাসুদ রানা ,মো.লিটন,মো.সুমনহোসন ,মো.আলমগীর হোসন,মির্জা সিদ্দিক ,মো.রাসেল ,রবিউল ইসলাম,নজরুল ইসলাম প্রমুখ।
 
প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্যে বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবকদল কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো:মোসলেহউদ্দিন হাওলাদার আরিফ বলেন,‘বর্তমান সিইসির অধীনে আর কোনো নির্বাচন নয়। বর্তমান নির্বাচন কমিশনকে বাতিল করে সকল রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করে দ্রুত জাতীয় নির্বাচন দিতে হবে।৫ই জানুয়ারি ২০১৪ ভোটাবিহীন গঠিত অবৈধ সংসদ বাতিল করে শেখ হাসিনার পদত্যাগ এবং বর্তমান মেরুদণ্ডহীন রকিব উদ্দিন নির্বাচন কমিশন (ইসি) বিলুপ্ত করে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে জাতীয় নির্বাচন দেওয়ার দাবি জানান ।
 
এ ছাড়া তিনি দলীয় নেতা কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, বর্তমান অবৈধ সরকারকে হটাতে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে ব্যক্তির চেয়ে দল বড়। জনগণকে আওয়ামী লীগের দুঃশাষণমুক্ত করতে নেতাকর্মীদের আন্দোলন সংগ্রামে ঝাপিয়ে পড়তে হবে।
 
লিয়াকত আলী স্বপন বলেন, দেশের জনগণ শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় রয়েছে। এই সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না। তারা উন্নয়নের নামে লুটপাট করছে রাষ্ট্রীয় তহবিল ফঁকা করছে।তাই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের মাধ্যমে বাংলাদেশের মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে প্রবাস থেকে সরকার বিরোধী আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। 
 
মো: নাসিম উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘বাংলাদেশে জাতীয় উন্নয়নের সঙ্গে গণতন্ত্র জড়িত, গণতন্ত্রকে বিকশিত করার স্বার্থে গণতান্ত্রিক সরকার অপরিহার্য। অগণতান্ত্রিক সরকার দিয়ে জোর করে দেশ চালানো যাবে, কিন্তু দেশের সামগ্রিক উন্নয়নকে এগিয়ে নেওয়া যাবে না। 
সভাপতির বক্তব্যে এম.মনজুর সরওয়ার বাবু বলেন, আওয়ামী লীগকে দেখে মনে হয় তারা রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। ভিন্নমত পোষণকারী রাজনৈতিক দলগুলোকে কাজ করতে দেওয়া হচ্ছে না।বর্তমান আওয়ামী সরকার ৫ই জানুয়ারী ২০১৪ ওপৌরসভা ,সিটি এবং উপজেলা নির্বাচনের একদলীয় নির্বাচনের মাধ্যমে দেশে গণতন্ত্ররের কবর রচিত করেছে।
অনুষ্ঠানটি সাবর্কিভাবে পরিচালনা করেন আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি সংসদের সভাপতি আবদুল্যাহ আল মামুন।
সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন