লেবাননে বি-বাড়িয়া জেলার প্রবাসিদের “বি-বাড়িয়া তিতাস প্রবাসি সংগঠন” গঠিত

সময় বাংলা,লেবানন :

OLYMPUS DIGITAL CAMERAলেবাননের আইন আল-রুম্মানীর বাবু ইষ্ট নামে বাংলাদেশি একটি হোটেলে বি-বাড়িয়া জেলার প্রবাসিদের উদ্যোগে রমরমা পরিবেশে গঠিত হল “বি-বাড়িয়া তিতাস প্রবাসি সংগঠন”

শত শত বি-বাড়িয়া প্রবাসিদের উপস্থিতিতে নতুন এই সংগঠনের প্রতিষ্ঠা সভায় সভার সভাপতিত্ব করেন বি-বাড়িয়া জেলার লেবানন প্রবাসি আব্দুর রাজ্জাক বজলু। উক্ত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আমির হোসেন এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন কাউছার আলম জনি,মো. জকির হোসেন,জমির আলী।

আরো বিশেষ অতিথি ছিলেন বি-বাড়িয়ার সান্তান এবং বাংলাদেশ প্রবাসি কল্যান সমিতি লেবাননের সভাপতি মফিজুল ইসলাম বাবু, আওয়ামী লীগ নেতা ওয়াহিদুল ইসলাম চৌধুরী,আলী আকবর মোল্লা,তরুন লীগ সভাপতি হামিদুল ইসলাম শ্রাবন, বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক আবু বক্কর,  ওয়াসিম আকরাম, বাংলাদেশ বৈরুত এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক আব্দুল করিম, সংবাদকর্মী বাবু শাহা, কবির সরকার।

রাজনৈতি,অরাজনৈতিক সংগঠনের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে বি-বাড়িয়া জেলার উপস্থিত সকলের সম্মতি ক্রমে সংগঠনের সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন বি-বাড়িয়া জেলার সন্তান আব্দুর রাজ্জাক বজলু। সাধারন সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন বি- বাড়িয়ার কাউছার আলম জনি।এবং সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন আব্দুর রহিম।

নবনির্বাচিত সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, যদিও আমরা বি-বাড়িয়ার প্রবাসিরা সংগঠনটি করে থাকিনা কেন, লেবাননের সকল প্রবাসিদের মঙ্গলার্থে সব সময় আমরা তাদের পাশে থাকব।

সাধারন সম্পাদক তার বক্তব্যে বলেন, সুখে দুখে সকল প্রবাসিদের পাশে থাকবে আমাদের বি-বাড়িয়া তিতাস প্রবাসি সংগঠন।

অনুষ্ঠানে সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শুভেচ্ছা বক্তব্যে নতুন এই সংগঠন “বি-বাড়িয়া তিতাস প্রবাসি সংগঠন” কে শুভেচ্ছা জানান এবং আগামী দিনের পথ চলায় প্রবাসিদের মঙ্গলার্থে সকল সহযোগীতার আস্বাশ দেন।

সংগঠনের বিভিন্ন পদে আরো যারা এসেছেন, উপদেষ্টা মন্ডলী আমির হোসেন, মনির হোসেন ইকবাল, ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া, মোহাম্মদ আলী,সিনিয়র সহ-সভাপতি জাকির হোসেন,সহ-সভাপতি দুলাল মিয়া, জামান মিয়া,যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আপেল মাহমুদ,সহ-সাধারন সম্পাদক আলামিন,দপ্তর সম্পাদক শাহীনুল আলম শাহীন,প্রচার সম্পাদক মো.সোহেল ক্রিড়া সম্পাদক আবীর আলম, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আহসান উল্লাহ।

সভাটি যৌথ ভাবে পরিচালনা করেন, আব্দুর রহিম এবং শাহীনুল আলম শাহীন।

পরিশেষে বিশাল আকারের কেক কাটা হয় এবং প্রীতি ভোজের আয়োজন করা হয়।

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন