কানাডা বিএনপির বর্নাঢ্য আয়োজনে শহীদ জিয়ার ৮০তম জন্মবার্ষিকী পালিত

>মন্ট্রিয়ল, কানাডা :
zia birth day canadaকানাডার  মন্ট্রিয়লের ৬৭৬৭, কোত দে নেইজস্থ কম্যুনিটি সেন্টারে কানাডা বিএনপির আয়োজনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান, বীর উত্তমের ৮০ তম জন্মজয়ন্তি পালিত হয়।
 
বর্নাঢ্য আয়োজনে এবং বিশাল হল ভর্তি অতিথিদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশীদের মিলনমেলায় পরিনত হয় ।
 
কানাডা বিএনপির শহীদ জিয়ার জন্মদিন উদযাপন কমিটির আহবায়ক কামরুল হাসান ফারুক হাওলাদার এবং সদস্য সচিব কামরুল ইসলাম রানার সুচারু আয়োজনে এই জাঁকজমক পূর্ন অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয় । চমৎকার ও নান্দনিক সাজসজ্জায় আয়োজন স্থলটির পরিবেশ হয়ে উঠে আনন্দময়।সাজসজ্জার সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন কানাডা বিএনপি নেতা জনাব এজাজ আকতার তৌফিক ।
 
কানাডা বিএনপি নেতা জনাব জয়নাল আবেদীন জামিল এবং জনাব নূর নবী রশিদের সাবলীল ও প্রানবন্ত উপস্থাপনায় এই জন্মদিনের অনুষ্ঠান হয় উঠে আরো উপভোগ্য ।
 
অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কুরআনের আয়াত তেলাওয়াত করেন মৌলানা শরীফ মাহমুদুল হাসান । এক্ষনে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়া ,তার সদ্য পরলোকগত প্রিয় পু্র আরাফাত রহমান কোকো ,বিএনপি স্থায়ী কমিটির প্রবীনতম সদস্য সদ্য প্রয়াত  ড.এ আর গনী এবং কানাডা বিএনপি নেতা মরহুম ইকবাল আহমেদের রূহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয় ।
 
এর পর জাতীয় সংগীত এবং দলীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়।
 
শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কর্মময় জীবনের উপর সূচনা বক্তব্য দেন কানাডা বিএনপির বর্ষিয়ান নেতা জনাব মামুনুর রশীদ।
 
একইসময় বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী আরিফুর রহমান কামালের তত্বাবধানে ‘জিয়াউর রহমান এবং বাংলাদেশ’ শিরোনামে শিশুদের এক বিশেষ চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজিত হয় । বেশ কিছু নতুন প্রজন্মের বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত শিশুগন বিপুল উৎসাহে ছবি আঁকায় অংশ নেয়।
 
সুচনা বক্তব্যের পর একে একে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন,কানাডা বিএনপি নেতা সর্বজনাব , রফিকুল ইসলাম,কাজী হোসেন , নুরুল আমিন , ফজলে এলাহী , জুবের আহমেদ , আবদুল ওয়াদুদ রুকন , মেহেদী ফারুক , শাফি উদ্দীন ,হাফিজুর রহমান ,আবদুল মান্নান , সিরাজুল ইসলাম মিজি , মকসুম তরফদার , ক্যাপ্টেন(অবঃ)মারুফুর রহমান রাজু  , নাসির উল্লাহ ,আবদুস সামাদ খান নান্টু , আবুল বাশার মানিক , মোস্তাফিজুর রহমান লাবু , আনসার উদ্দীন আহমেদ , নবী হোসেন , মারিফুর রহমান , এজাজ আকতার তৌফিক , মমিনুল ইসলাম ভূঁইয়া , এবিএন রাজ্জাক রাজু , জিয়াউল হক জিয়া প্রমুখ।
 
এপর্যায়ে বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা টরেন্টো নিবাসী কানাডা বিএনপির সিনিয়ার নেতা জনাব রেজাউল করিম তালুকদার ।
 
জন্মদিন অনুষ্ঠানের শুভেচ্ছা বক্তব্যে বিএনপি নেতাগন শহীদ জিয়ার রেখে যাওয়া অমুল্য আদর্শ এবং তাঁর  প্রনিত ১৯ দফার আলোক বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবার উপর গুরুত্বারোপ করেন।
 
এক্ষনে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কর্মময় জীবনের উপর নির্মিত একটি দুর্লভ ভিডিও চিত্র বড়পর্দায় পরিবেশিত হয় । এই ভিডিও চিত্রটি দেখে উপস্থিত সূধী বৃন্দ আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন।
 
এপর্যায়ে শহীদ জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষ্যে আয়োজিত শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষনা  এবং বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরন করা হয়। ৫-৭ বছর গ্রুপে ১ম হয় ঐশর্য রহমান , ২য় তাইবা এবং ৩য় স্থান অধিকার করে রুসাম। ৮-১৪ বছর গ্রুপে ১ম স্থান অধিকার করে নিশা , ২য় হয় মাহদী খান , তয় হয় তালহা ।
 
এরপর শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮০ তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে নির্মিত চমৎকার ও বিশাল একটি কেক কাটেন উপস্থিত কানাডা বিএনপির নেতৃবৃন্দ ।
 
এই চমৎকার ও প্রানবন্ত অনুষ্ঠান আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব কামরুল ইসলাম রানা তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে উপস্থিত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
 
অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বের শেষে সমাপনী বক্তব্য রাখেন ,আয়োজক কমিটির আহবায়ক কানাডা বিএনপি নেতা কামরুল হাসান ফারুক হাওলাদার।তিনি এই প্রানবন্ত ও জাকজমকপূর্ন অনুষ্ঠানটি আয়োজনে সহযোগিতা করায় কানাডা বিএনপির সকল নেতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন,সব বিভেদ ভূলে কানাডার জিয়ার সৈনিকেরা আজ এক হয়েছে ,যে কোনো মূল্যে এই ঐক্য বজায় রেখে সামনে এগিয়ে যেতে হবে ।
 
অনুষ্ঠানের ২য় পর্ব ছিলো ভূড়িভোজন এবং আকর্ষনীয় সংগীতানুষ্ঠান । বিএনপি নেতা জনাব সিরাজুল ইসলাম মিজির তত্বাবধানে অত্যন্ত সূচারুভাবে উপস্থিত সন্মানিত অতিথিদের মাঝে রাতের খাবার পরিবেশন করা হয় ।
 
বিএনপি নেতা বিশিষ্ট সঙ্গীতজ্ঞ মেহেদী ফারুকের সংগীত পরিচালনায় চমৎকার সংগীত পরিবেশন করেন , প্রবাসের বিশিষ্ট শিল্পী শফিউল ইসলাম , জোবায়ের টিপু ,রূমা কর এবং মেহেদী লিমন।অনুষ্ঠানে অনবদ্য বাঁশী বাজিয়ে সকলকে বিমোহিত করেন প্রবীন শিল্পী জনাব আবুল আলম।
 
মন্ট্রিয়লের ইতিহাসে আজকের অনুষ্ঠানটি সবচেয়ে চমকপ্রদ এবং উপভোগ্য হয়েছে বলে উপস্থিত সাধারন দর্শকগন অভিমত প্রকাশ করেন।বাংলাদেশের ইতিহাস এবং সংস্কৃতি কানাডায় জন্ম গ্রহনকারী নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে এধরনের আরো অনুষ্ঠান আয়োজনের কোন বিকল্প নেই বলেও সকলের অভিমত ।
সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন