দাওয়াত না পেয়ে শিক্ষা অফিসে ভাঙচুর ও কর্মকর্তাদের লাঞ্ছিত করল ছাত্রলীগ

42 rongpurবিশেষ প্রতিনিধি, রংপুর: জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহের অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দকে দাওয়াত না দেয়ায় রংপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কক্ষে ব্যপক ভাঙচুর ও কর্মকর্তাদের লাঞ্চিত করেছে বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার সকালে এ ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দকে দাওয়াত দেয়া হলেও জেলা নেতৃবৃন্দকে দাওয়াত দেয়নি কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের মধ্যে ব্যপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে সেখান থেকে র‌্যালী বের হওয়ার আগ মুহুর্তে বিষয়টি নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার খলিলুর রহমানের অফিসে ১০/১২ টি মোটর সাইকেল যোগে গিয়ে বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগনেতা কর্মীরা তাকে তালাবদ্ধ করে দাওয়াত না দেয়ার কারণ জানতে চায়। এসময় তারা সেখানকার টেবিল চেয়ার, টেলিফোন লাইন ভাঙচুর কাগজপত্র ও তছনছ ও উপস্থিত কর্মকর্তাকর্মচারীদের লাঞ্ছিত করে।

এক পর্যায়ে সেখানে উপস্থিত বাংলাদেশ বেতার রংপুরের উপস্থাপক শাহাদত মাহমুদ বুলেটকে মারধোর ও তার মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। পরে তারা টাউন হলের মঞ্চ থেকে ব্যানারটিও ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী মমতাজ বেগম বলেন, সকালে ১০/১২ টি মোটরসাইকেল যোগে ১৬/১৮ জন যুবক অফিসের দোতালায় স্যারের অফিসে গিয়ে ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে চার্জ করে অনুষ্ঠানটি জেলা ও না মহানগরের । কেন দাওয়াত দেয়া হলো না। এনিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে তারা স্যারের রুমের ৪ টি চেয়ার, টেবিল, টেবিল, ফ্যান, টেলিফোন লাইন ভাঙচুর করে।

ওই অফিসের ক্যাশিয়ার আফরোজা বেগম জানান, দাওয়াত পত্র নিয়েই তারা অফিসে এসে সন্ত্রাসী কায়দায় ভাঙচুর করে। তারা অনেক লোক হওয়ায় আমরা তাদের বাঁধা দিতে পারিনি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন