নেতাকর্মীদের পদভারে মুখরিত পল্টন-গুলশান কার্যালয়

bnp_92742সময় বাংলা ডেস্ক : আগামী ১৯ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য দলের ৬ষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল এবং আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে মুখরিত হয়ে উঠেছে বিএনপির নয়পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়।

দিনের বেলায় নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এবং রাতে চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে প্রতিদিন ভিড় জমাচ্ছে দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। সক্রিয় হয়ে উঠেছে মামলা ও হয়রানির শিকার হয়ে আত্মগোপনে থাকা নেতাকর্মীরাও। দল বিমুখ নেতা-কর্মীরা এখন দল ও দলীয় কার্যালয়মুখী হতে শুরু করেছে।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিদিন ভোর বেলা থেকে বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে এসে ভিড় জমাচ্ছেন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে। কেউবা আসেন চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীর মনোনয়ন পাওয়ার জন্য আবার কেউবা আসেন কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে সাক্ষাতের মাধ্যমে নিজের কাজের তৎপরতা দেখানোর জন্য।

আর প্রতিদিন আগত শত শত নেতাকর্মীদের নিয়েই নয়াপল্টনের অফিসে জাতীয় কাউন্সিল ও আসন্ন ইউপি নির্বাচনের বিভিন্ন কার্যক্রম চালাচ্ছেন দপ্তরের দায়িত্ব থাকা দলের কেন্দ্রীয় নেতারা

কাউন্সিলকে ঘিরে সরগরম নয়াপল্টন

আসন্ন বিএনপির ৬ষ্ঠ কাউন্সিলকে ঘিরে দিন দিন সরগরম হয়ে উঠেছে দলের নয়াপল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ আশ-পাশের এলাকা।

নেতারা পদ-পদবীর জন্য লবিং করে যাচ্ছেন। সিনিয়র নেতাদের কাছে ধর্না দিচ্ছেন। কিন্তু সিনিয়র নেতারা কোন কিছূই করতে পরছেন না তাদের জন্য। কারণ এবারের কাউন্সিলের মাধ্যমে তরুণ, মেধাবী, সৎ ও যোগ্যদের নেতৃত্বে আনা হবে, বলে দিয়েছেন দলের চেয়ারপাসন।

ঢাকা মহানগর

অতীতে আন্দোলনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনে দেখা গেছে, ঢাকা মহানগর অনেক পিছিয়ে ছিলো। কখনো কখনো ঢাকা মহানগরে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনসমুহের অস্তিত্বই খুঁজে পাওয়া দুষ্কর হয়েছে। সেই ঢাকা মহানগরের থানা, ওয়ার্ডসহ বিভিন্ন ইউনিটের নেতা-কর্মীরা সকাল থেকেই এখন স্লোগান স্লোগানে মুখোরিত তুলছেন নয়া পল্টান এলাকা। বিশেষ করে ছাত্রদল, যুবদল, সেচ্ছাসেবকদল সহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা এখন বেশ সক্রিয়।

বিগত আন্দোলনের সময় যারা মামলা হামলার শিকার হয়েছেন এবং প্রতিনিয়ত পুলিশী নির্যাতনের ভয়ভীতির মধ্যে আত্মগোপনে ছিলেন তারাও এখন দৃশ্যমান সক্রিয় হয়ে উঠেছেন।

জমজমাট গুলশান কার্যালয়

বেশ জমজমাট হয়ে উঠেছে বিএনপির চেয়ারপাসনের গুলশানস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ও। সন্ধ্যা না হতেই গুলশান কার্যালয় এলাকা নেতা-কর্মীদের কলরব এবং মাঝে মাঝে স্লোগানও দেখা যায়। আর এই অবস্থা চলতে থাকে দলের চেয়ারপাসন বাসভবনে যাওয়া পর্যন্ত। তৃণমূল থেকে শুরু করে বিভিন্ন  পর্যায়ের নেতাকর্মীরা ভীড় জমাচ্ছেন চেয়ারপাসন অফিসে। কেউবা নিজের পদের জন্যে আবার কেউবা ঘনিষ্ঠজনদের জন্য তদবির করছেন।সূত্র: শীর্ষনিউজ

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন