৪২ মাস পর ছাড়া পেলেন সঞ্জয় দত্ত, জেলের বাইরে বিক্ষোভ

sonjoy dottসময় বাংলা ডেস্ক : ৪২ মাস পুণের ইয়েরওয়াড়া জেলে কাটানোর পর আজ ছাড়া পেলেন সঞ্জয় দত্ত। ১৯৯৩ সালের ১২ মার্চ পরপর ১৩টি বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে মুম্বই৷ এর পরই বেআইনিভাবে নাইন এমএম পিস্তল ও একে-ফিফটি সিক্স রাইফেল রাখার অপরাধে টাডা আইনে গ্রেফতার হন বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত৷

২০০৬-এ সঞ্জয় দত্তকে ৬ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় টাডা আদালত৷ ২০০৭ সালে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে জামিনে মুক্তি পান। ২০১৩ সালে সঞ্জয় দত্তর কারাদণ্ডের মেয়াদ ৬ বছর থেকে কমিয়ে ৫ বছর করে সুপ্রিম কোর্ট৷ ওই বছরেরই ১০ মে সাজা পুনর্বিবেচনার আবেদন খারিজ করে সঞ্জয় দত্তকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেয় সর্বোচ্চ আদালতে। ২০১৩-র ১৬ মে টাডা কোর্টে আত্মসমর্পণ করেন সঞ্জয় দত্ত৷ শেষ পর্যন্ত সংশোধনাগারে ভাল আচরণের জন্য সঞ্জয়কে মুক্তি দেওয়ার প্রস্তাবে অনুমোদন দেয় মহারাষ্ট্র সরকার।
তবে সঞ্জয় দত্তর মুক্তি নিয়েও বিক্ষোভ এবং বিতর্ক শুরু হয়েছে দেশের নানা মহলে। তাঁর বার বার প্যারোলে মুক্তি পাওয়া নিয়ে এর আগেই সরব হয়েছিলেন দেশের একাধিক বুদ্ধিজীবী মানুষ। কারণ, ২০১৩-র মে থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ১১৮ দিন তিনি প্যারোলে জেলের বাইরেই কাটিয়েছেন।
আজ সঞ্জয়ের ছাড়া পাওয়ার প্রতিবাদে জেলের বাইরে বিক্ষোভ দেখান কিছু লোক। মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে সঞ্জয়ের মুক্তির বিরুদ্ধে তারা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। তবে অল্প সময়ের মধ্যেই বিক্ষোভকারীদের ওই এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়ে যায় পুলিশ।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন