পর্তুগালের বাংলাদেশ কমিউনিটি অব পোর্তো অমর একুশে উদযাপন

>portugal 21febসময় বাংলা, পর্তুগাল : বাঙ্গালী জাতি স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখেছিলো,৫২র ভাষা আন্দোলনের শহীদের রক্ত দানের মাধ্যমে। ভাষা শহীদদের প্রানের বলিদানে দেখেছিলো ৭ কোটি মানুষ স্বাধীনতার প্রথম স্বপ্নিল সূর্যটা, যে মাতৃভাষার আন্দোলনে পেয়েছি মায়ের ভাষা, সেই সূর্য সন্তানদের চরনে আমাদের শত সহস্র সালাম, সেই সূর্য সন্তানদের প্রতি গভীর শ্রদ্বান্জলি মধ্য দিয়ে ২১শে ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৭ টা ৩০ মিনিটে পর্তুগালে ২য় বৃহওম শহরে  বাংলাদেশ কমিউনিটি অব পোর্তোর আয়োজনে আন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্ঠানে ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারী সেই রক্তাক্ত গৌরবের দিন নিয়ে ডকুমেন্টারী দিয়ে শুরু হয় ২১শের অনুষ্ঠান।
বাংলাদেশ কমিউনিটি অব পোর্তোর সভাপতি শাহ আলম কাজল এর সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক মামুন হাজারীর পরিচালনায় সন্ধ্যা ৮টা ১৫ মিনিটে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের ইমতিয়াজ আহমেদের পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শুরু হয় ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন। এরপর ধারাবাহিকভাবে পর্তুগাল সরকারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ডঃ জোসে লুইস কার্ণেইরো, ডঃ ফেরারা লিদা (সভাপতি বোর্ড অব পার্লামেন্ট), ডঃ তিয়াগো বারবোজা সংসদ সদস্য পর্তুগাল, পোর্তোর স্থানীয় প্রশাসনিক কর্মকর্তা ডঃ মেনুয়াল গাদাস, ডঃ এন্থনি ফনসেসকা, ডঃ ফনসেসকা কারভেইলো, ডঃ এন্থনি রুই পেস, ডোনা নাতালিয়া, সহ কমিউনিটির বিভিন্ন রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক সংগঠন ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। 
 
শহীদ বেদীতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের শেষে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ, তিনি তাঁর বক্তব্যের শুরুতে শহীদের স্বরণ করেন তিনি বলেন প্রবাসে বেড়ে উঠা বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা বাংলা শেখায় আগ্রহী হন না। তাই পর্তুগালের বসবাসরত নতুন প্রজন্মের বাঙালির কাছে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতিকে তুলে ধরার জন্য আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস ব্যাপকভাবে উদযাপনের জন্য কমিউনিটির এ উদ্যোগ কে স্বাগত জানান। তিনি ধন্যবাদ জানান ক্যামেরা মিউনিসিপাল লিসবনকে স্থায়ী শহীদ মিনার নির্মানের জন্য এবং আশাবাদ ব্যাক্ত করেন পোর্তোতেও একটি স্থায়ী শহীদ মিনার নির্মিত হবে। অনুষ্ঠানে শেষে আগত অতিথিদের মাঝে ২১শের ক্রেস্ট তুলেদেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ।  
উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আব্দুল আলিম, নজরুল ইসলাম শরিফ, মোশারফ হোসেন কিরণ, নাইম নিয়াজ জামশেদ, ফারুক হোসেন, নাজির, শরিফুজ্জামান, ইদ্রিস মাতবর, কাজল আহমেদ, মজিবুর রহমান, মোঃ রাকিব, মোঃ হাই, মোঃ হাবিবুর রহমান, মাহাব্বত আলম টিপু, তৌহিদুল ইসলাম সহ কমিউনিটির নেত্রীবৃন্দ।   
অনুষ্ঠানে শেষে বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব পোর্তোর পক্ষ থেকে নৈশ ভোজের আয়োজন করা হয়। 
সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন