ঝালকাঠিতে বায়েমেট্রিক পদ্বতিতে সিম নিবন্ধনে নানাকৌশালে চলছে অর্থ আদায়

sim regiসময় বাংলা, ঝালকাঠি : ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের ঘোষনা অনুযায়ী জানুয়ারী থেকে এপ্রিল পর্যন্ত দেশ জুরে শুরু হয়েছে বায়েমেট্রিক পদ্বতিতে সিম নিবন্ধন। এই কার্যক্রমে সাধারন গ্রহকদের আর্থিক গচ্ছা দিতে হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে। ঝালকাঠি জেলার বিভিন্ন প্রান্তে মোবাইল অপরেটর কোম্পানী বিশেষ জনবল নিয়োগ করে নিবন্ধন কার্যক্রম পরিচালনায় নানাকৌশালে চলছে নগদ অর্থ আদায়। আর অপরেটর কোম্পানীর স্থানীয় অফিসে গেলে কোন রকম খরচ না নিলেও সময়ক্ষেপনের মাধ্যমে গ্রহকদের হয়রানি হতে হচ্ছে বলে ভুক্তোভুগীরা জানিয়েছেন।

মোবাইল অপরেটর কোম্পানীর প্রতিনিধি ও ব্যাবসায়ীরা গ্রহকের কাছ থেকে ১ কপি জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি ও আঙুলের ছাপ রেখে প্রতিটা সিম নিবন্ধনে নিয়ে নিচ্ছে ২০ টাকা থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত।

এ ব্যাপারে ঝালকাঠি কাঠালিয়ার বাংলালিংক সার্ভিস পয়েন্টের ব্যাবস্থাপক মোঃ শামিম মিয়া বলেন, সিম নিবন্ধনে কোন টাকা নেয়ার নিয়ম নেই। ব্যাবসায়ীদের বা রিটেইলারের কাছে না গিয়ে সরাসরি সার্ভিস পয়েন্টে গেলে কোন টাকা ছাড়া নিবন্ধন করে দেয়া হয়।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন